জো বাইডেন। ফাইল ছবি

জর্জিয়াতে জয়ের ব্যাপক সম্ভাবনা বাইডেনের

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে টানটান উত্তেজনা চলছে। দেশটির ৫০টি রাজ্যের মধ্যে ৪৫টির ফলাফল প্রকাশ হয়েছে। এতে এ পর্যন্ত বাইডেন পেয়েছেন ২৬৪ ইলেকটোরাল ভোট। আর ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি।

দেশটিকে ৫টি অঙ্গরাজ্য নিয়ে হিসাব-নিকাশ চলছে। জর্জিয়ায় ট্রাম্প ও বাইডেনের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে।  এ রাজ্যটিতে মোট ইলেকটোরাল কলেজ ভোট রয়েছে ১৬টি।

বার্তা সংস্থা এপির তথ্যানুসারে ৯৮ শতাংশ ভোট গণনা হয়ে গেছে। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ট্রাম্প পেয়েছেন ২৪ লাখ ৩২ হাজার ৯৭ ভোট (৪৯.৬ শতাংশ) আর জো বাইডেন পেয়েছেন ২৪ লাখ ১৩ হাজার ৯৯ ভোট (৪৯.২ শংতাশ)।

সিএনএন জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত জর্জিয়াতে মোট ৮টি কাউন্টিতে ভোট গণনা বাকি আছে। কাউন্টিগুলো হল-অ্যাপলিং, অ্যাটকিনসন, ব্যাকন, ব্যাকার, ব্যাংকস, ব্যাল্ডউইন, ব্যারো ও বারটোও কাউন্টি।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, রাজ্যটিতে গতকাল রাতেও যেখানে ট্রাম্প ৩০ হাজার ভোটে এগিয়ে ছিলেন, তবে পরের দিন তার চিত্র ভিন্ন হয়ে গেছে। সকাল থেকে ব্যবধান কমে ১৮ হাজার ৫শ’তে চলে এসেছে।

গতকাল রাতে ফুলটন কাউন্টিতে ২০ হাজার মেইলি ভোট গণনা শুরু হয়েছে। সেখানে ৮ হাজার ৩৯৫ ভোট গণনায় দেখা গেছে, বাইডেন পেয়েছেন ৬ হাজার ৪১০ ভোট আর ট্রাম্প পেয়েছেন একা হাজার ৯৪১ ভোট।

কাউন্টি নির্বাচন কর্মীরা সারারাত ধরে ভোট গণনা করেছেন এবং এখন পর্যন্ত এখনো চালিয়ে যাচ্ছেন। সিএনএনের হিসাব অনুযায়ী, জর্জিয়াতে এখনো ৪ শতাংশ ভোট বাকি আছে। সেগুলো গণনার কাজ চলছে।

বাইডেন যদি অবশিষ্ট ভোটগুলোর মধ্যে ৬০ শতাংশ বা ৬২ শতাংশ পেয়ে যান তাহলে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে টপকাতে পারবেন বলে মন্তব্য করেছেন মাটিনলি।

কয়েকটিতে ফলে দেখা গেছে, ফুলটন কাউন্টিতে অবশিষ্ট ভোট গণনায় দেখা গেছে, বাইডেন ৮০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন সেখানে ট্রাম্পের ২০ শতাংশ। এই ফলটিতে দেখা গেছে বাইডেন ৬২ শতাংশের বেশি পেয়েছেন। যদি এভাবে তিনি ধরে রাখেন, তাহলে জো বাইডেন এ রাজ্যটিতে ট্রাম্পকে টপকাতে পারবেন। এই অবস্থায় এখন জর্জিয়াতে বাইডেনের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে’ তিনি যোগ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে ৫৩৮ ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের মধ্যে ২৭০টিতে জয় দরকার। ৫০ অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৪৫টির ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে এ পর্যন্ত বাইডেন পেয়েছেন ২৬৪ ইলেকটোরাল ভোট। আর ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি। প্রেসিডেন্ট হতে বাইডেনের দরকার ৬ ইলেকটোরাল ভোট, আর ট্রাম্পের দরকার ৫৬টি।

এই হিসাবে বাইডেন যদি জর্জিয়াতে জয় লাভ করেন তাহলে তার ইলেকটোরাল ভোটের সংখ্যা দাঁড়াবে ২৮০টিতে। ফলে নিশ্চিতভাবেই হোয়াইট হাউসে নেতৃত্ব দেবেন বাইডেন। তাতে করে ট্রাম্পের অন্য রাজ্যগুলো নিয়ে মামলা কোনো কাজেই আসবে। এতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে যে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল তা অবসান হবে বলেই ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।