অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক।

ফারুকের অবস্থা আশঙ্কাজনক, সিঙ্গাপুরে নেয়া হতে পারে

সেপ্টেম্বরের শুরুতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ঢাকাই সিনেমার ‘মিয়া ভাই’ খ্যাত অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক।

টানা ৮ দিনের চিকিৎসা শেষেও তার শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হয়। বিশেষ করে জ্বর ছাড়ছে না অভিনেতার।

দিন দিন শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হয়ে এখন আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি। তাই দ্রুত উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করতে সিংগাপুরে নেয়ার চিন্তাভাবনা করছে পরিবার।

এ বিষয়ে অভিনেতার স্ত্রী ফারহানা ফারুক গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘আসলে কী করলে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন ভেবে পাচ্ছি না। তার জ্বর নামছেই না। আমরা সব রকম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। করোনা টেস্টেও নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। টাইফয়েড, ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়ার নমুনাও টেস্ট করা হয়েছে। রিপোর্টে খারাপ কিছু পাওয়া যায়নি। তবু ১০১ ডিগ্রির নিচে নামছে না গায়ের তাপমাত্রা। স্বাভাবিকভাবেই দুশ্চিন্তা বাড়ছে।’

ফারহানা ফারুক আরও বলেন, ‘সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। করোনার কারণে বর্তমানে বিদেশে যাতায়াতে অনেক জটিলতা আছে। তবুও উনাকে দ্রুত সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাব। আপনারা দোয়া করবেন।’

সম্প্রতি শারীরিক অবস্থা ভালো যাচ্ছে না ঢাকাই ছবির সাদাকালো যুগের অন্যতম এই নায়কের। অনেক দিন ধরেই ঠান্ডা-জ্বরে আক্রান্ত তিনি।

করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ১৮ আগস্ট রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন ফারুক। ২৬ আগস্ট অনেকটা সুস্থ হয়ে বাসায় ফেরেন।

এর চার দিনের পরেই একই রকম অসুস্থতা নিয়ে ফের হাসপাতালে ভর্তি হন ৭২ বছর বয়সী এই অভিনেতাকে ।

করোনা উপসর্গ দেখা দিলেও কয়েক দফায় করোনা পরীক্ষা করা হলে তার ফলাফল নেগেটিভ আসে।

তবুও জ্বর না কমায় ফারুককে স্থানান্তরিত করা হয় এভারকেয়ার হাসপাতালে। সেখানে কিডনি বিশেষজ্ঞ এবাদুর রহমান ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ নিকাশ শায়লার তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা চলছে ফারুকের। ৯ সেপ্টেম্বর অভিনেতা ফারুকের চিকিৎসা সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয় নিয়ে এভারকেয়ার হাসপাতালে বোর্ড মিটিং হবে বলে জানা গেছে।