চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপের শিরোপা আর্সেনালের

চেলসিকে হারিয়ে ১৪তম বারের মতো এফএ কাপ শিরোপা জিতে নিয়েছে আর্সেনাল। শনিবার দিবাগত রাতে লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে চেলসিকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে এফএ কাপের সর্বোচ্চ শিরোপা জয়ের রেকর্ডটাকে আরেকটু উঁচুতে নিয়ে যায় আর্সেনাল।

বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১০টায় শুরু হয় ‘লন্ডন ডার্বি’র ফাইনাল। এদিন ১৪তম বারের মতো শিরোপা জিততে আর্সেনাল এবং দশমবারের মতো শিরোপা জিততে চেলসি মাঠে নামে। শেষ পর্যন্ত গ্যাবনের স্ট্রাইকার পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংয়ের জোড়া গোলে শেষ হাসি হাসে আর্সেনাল।

শুরু থেকে আক্রমণ, পাল্টা-আক্রমণে জমে ওঠা ম্যাচে তৃতীয় মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত আর্সেনাল। কিন্তু পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংয়ের হেড জাল খুঁজে পায়নি। ম্যাসন মাউন্টের প্রচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর পঞ্চম মিনিটে চেলসি শিবিরে আনন্দের বার্তা নিয়ে আসেন ক্রিশ্চান পুলিসিক। অলিভিয়ে জিরুদের বাড়ানো বল ধরে ডান পায়ের শটে পুলিসিকের করা গোলে এগিয়ে যায় ২০১৭-১৮ মৌসুমে সবশেষ এফএ কাপ জেতা চেলসি। অলিভিয়ে জিরুদের বাড়ানো বল ধরে ডান পায়ের শটে জাল খুঁজে নেন পুলিসিক।

গোল খাওয়ার পরই পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে আর্সেনাল। শেষমেশ ২৮ মিনিটের মাথায় গোল দিয়ে খেলায় সমতা আনে তারা। পেনাল্টি থেকে নিজের প্রথম ও সমতাসূচক গোলটি করেন অবামেয়াং। এরপর দুই দলই এগিয়ে যেতে শুরু করে প্রাণপণ লড়াই। তারপরও ১-১ সমতায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে দুই দল। অবশেষে দ্বিতীয়ার্ধের ২২ ও ম্যাচের ৬৭তম মিনিটে দ্বিতীয় এবং জয়সূচক গোলটি করেন অবামেয়াং। খেলার ৭৩ মিনিটে ম্যান্তো কোভ্যাসিকের লাল কার্ডে সমতা আনতে মরিয়া চেলসি আরো পিছিয়ে পড়ে। দশজনের দল নিয়ে শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠেনি চেলসি। এর মধ্য দিয়ে আর্সেনাল পরবর্তী মৌসুমের ইউরোপা লিগে খেলার সুযোগ পেলো।

এবার নিয়ে ইংলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রায় দেড় শতাব্দীকালের পুরোনো এফএ কাপ প্রতিযোগিতায় আর্সেনালের এটি চতুর্দশ শিরোপা। ২০১৬-১৭ মৌসুমেও চেলসিকে একই ব্যবধানে হারিয়ে নিজেদের ত্রয়োদশ শিরোপা জিতেছিল দলটি।

১৮৭১ সাল থেকে হয়ে আসা এই প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সফল দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড শিরোপা জিতেছে ১২ বার।