চাঁদপুর মতলব উত্তর উপজেলার কলাকান্দা ইউনিয়নে ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগ এনে সম্মেলন করেছে ওয়ার্ডের পরাজিত মেম্বার প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম।

ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মতলব উত্তর ইউপি নির্বাচনে কলাকান্দা ইউনিয়নে

মতলব উত্তর ব্যুরো
চাঁদপুর মতলব উত্তর উপজেলার কলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ২নং ওয়ার্ডের ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগ এনে পুনরায় ভোটগ্রহণ অথবা পুনঃ ভোট গণনার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ওয়ার্ডের পরাজিত মেম্বার প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম।
সোমবার (২৯ নভেম্বর) সকালে দশানী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরাজিত মেম্বার প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গত ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে একজন ইউপি সদস্য প্রার্থী ছিলেন। ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা নিজেদের মতো ভোট গণনা করে তাদের ইচ্ছামত নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করেন। অথচ শতভাগ নিশ্চিত ছিলাম যে উক্ত নির্বাচনে জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে এবং ভোটে অনেক এগিয়ে ছিলাম। কিন্তু তারা আপোষ যোগসাজশে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে কারচুপি করেছে। আমি জনগণের ভোটে বিজয়ী। যেখানে মাত্র ৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত দেখানো হয়েছে। এমনকি আমার রেজাল্ট শীট পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। আমার ফুটবল মার্কার ১৯৪ ভোট দেখানো হয়। বিজিত প্রার্থীর ভোট সংখ্যা ১৯৭। আমার ১৩টি ভোট প্রিজাইডিং অফিসার নষ্ট করেছেন। জনগণের ভোটে আমি জিতলেও প্রহসনের মাধ্যমে পরাজিত করা হয়েছে। অত্র প্রহসনমূলক নির্বাচনের নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে সুষ্ঠু তদন্ত করলে প্রকৃত সত্য ঘটনা উদঘাটন হবে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি পুনরায় ভোটগ্রহণ অথবা পুনঃ নির্বাচনের দাবি জানান।
ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার ও মুন্সী আজিম উদ্দীন ডিগ্রী কলেজের প্রফেসর শরিফুল্লাহ এজেন্টদের বের করে দিয়ে ৩ ঘন্টা পর রিজাল্ডসীট প্রস্তুত করেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন কমিশন, রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ সহ নির্বাচন ট্রাইবুনালে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান তিনি। আরো বক্তব্য রাখেন, সমাজসেবক আবু নাছের ছৈয়াল, সাবেক ইউপি সদস্য সোলায়মান, লিটন ছৈয়াল। এসময় এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।