মতলব উত্তরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যা

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ, স্থানীয় দুই যুবক ওই ছাত্রীকে ফুঁসলিয়ে নারায়ণগঞ্জ নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। মৃত ছাত্রী আমেনা আক্তার মতলব উত্তর থানাধীন জোড়খালী গ্রামের মৃত. ডা. নাছির উদ্দিন মিয়াজীর মেয়ে।
মৃত ছাত্রীর স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে প্রাইভেট পড়ার জন্য বাসা থেকে বের হলে একই গ্রামের রিয়াসাদ ও শহীদুল্লাহ নামের দুই যুবক ফুসলিয়ে তাকে নারায়ণগঞ্জে নিয়ে আসে। দুপুরে রিয়াসাদ ছাত্রীর ভাইকে কল করে জানায়, ওই ছাত্রী তার সঙ্গে আছে এবং দুপুরে একসঙ্গে খাবার খেয়েছে।
বিকেলের দিকে বাসায় কল করে ‘ওই ছাত্রী অচেতন অবস্থায় রাজধানীর চিটাগাং রোড বটতলা এলাকায় পড়ে আছে’ বলে পরিবারকে জানানো হয়। পরে ভুক্তভোগী ছাত্রীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত সোয়া ১০টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
স্বজনরা আরও জানান, রিয়াসাদ নামের ওই যুবকের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল বলে তারা শুনেছেন। তবে পরিবারের দাবি রিয়াসাদ ও শহীদুল্লাহ মিলে সুকৌশলে ওই ছাত্রীকে মতলব থেকে নারায়ণগঞ্জ নিয়ে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় তারা আইনি ব্যব¯’া গ্রহণ করবেন বলে জানান।
ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ধর্ষণের শিকার হয়ে এক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট এলাকার থানা পুলিশকে জানানো হবে বলে তিনি জানান।
শুক্রবার রাতে নিজ গ্রাম জোড়খালিতে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।